বিজ্ঞপ্তি   

কোরবানীর পশুর চামড়া ছাড়ানোর নিয়মাবলী
... বিস্তারিত
শুরু » এনথ্রাক্স (তড়কা) রোগ প্রতিরোধে করণীয়
এনথ্রাক্স (তড়কা) রোগ প্রতিরোধে করণীয়

এনথ্রাক্স (তড়কা) রোগ প্রতিরোধে করণীয়

এনথ্রাক্স (তড়কা) গবাদিপশুর একটি সংক্রামক রোগ। এ রোগে আক্রান্ত হলে অধিক তাপমাত্রা, শ্বাসকষ্ট, লোম খাড়া হয়ে থাকা এবং শরীরে কাঁপুনি দেখা যায়। দ্রæত চিকিৎসা করা না হলে আক্রান্ত পশু ২ থেকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে মারা যায়। মৃত পশুর পেট দ্রæত ফেঁপে যায় এবং নাক, মুখ, কান, মলদ্বার ও যোনিপথ দিয়ে আলকাতরার মত রক্ত বের হয়।

করণীয় ঃ
লক্ষণ দেখা দেয়ার সাথে সাথে স্থানীয় প্রাণিসম্পদ অফিসে যোগাযোগ করতে হবে
অসুস্থ পশু সুস্থ পশু থেকে আলাদা রাখতে হবে
কোন ক্রমেই অসুস্থ পশু জবাই করা বা মাংস কাটা ছেঁড়া বা খাওয়া যাবে না
মৃত পশুর দেহের সব স্বাভাবিক ছিদ্রপথ কাপড় বা তুলা দিয়ে বন্ধ করে দিতে হবে
মৃত পশু যেখানে/সেখানে না ফেলে বা পানিতে না ভাসিয়ে উঁচু স্থানে কমপক্ষে ৬ হাত গভীর গর্ত করে চুন ছিটিয়ে পুঁতে ফেলতে হবে
অসুস্থ পশুর সকল মলমূত্র, রক্ত ও বিছানাপত্র একই গর্তে ফেলতে হবে বা পুড়িয়ে দিতে হবে
আক্রান্ত স্থান বিøচিং পাউডার বা অন্য কোন জীবাণুনাশক ঔষধ দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে
এলাকায় সকল সুস্থ গবাদিপশুকে এনথ্রাক্স (তড়কা) রোগের টিকা (রিং ভ্যাকসিনেশন) দিতে হবে
এ বিষয়ে স্থানীয় জেলা ও উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এবং প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের সাথে যোগাযোগ করতে হবে
প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ফোন ও ফ্যাক্স নং-৯১২২৫৫৭